সর্বশেষ

নওগাঁয় আওয়ামী লীগ নেতা খুনের ঘটনায় মামলা

প্রতিনিধি | আপডেট: ১১:০৭, ডিসেম্বর ০৬ , ২০১৮


শহিদুল ইসলাম, নওগাঁ জেলা প্রতিনিধিঃ
নওগাঁর পতœীতলা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক পৌর মেয়র ইছাহাক হোসেন (৭০) খুনের ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। নিহতের শ্যালক আবুল কালাম আজাদ বুধবার সন্ধ্যায় বাদি হয়ে থানায় মামলা করেছেন। এ ঘটনায় গত মঙ্গলবার রাতে আটক হওয়া নজিপুর পৌরসভার ১নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর আবুল কালাম ওরফে লেটু ফকিরকে গ্রেফতার দেখিয়ে বৃহস্পতিবার আদালতের মাধ্যমে জেলা কারাগারে পাঠিয়েছে পুলিশ। গত বুধবার আটক করা অপর দুই ব্যক্তিকে জিজ্ঞাসাবাদ করে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।
পতœীতলা থানার ওসি পরিমল চন্দ্র মামলা করার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, এ ঘটনায় নিহত ইছাহাক হোসেনের শ্যালক আবুল কালাম আজাদ বাদী হয়ে মামলা করেছেন। মামলায় এজাহারে কি কারনে কারা তাকে হত্যা করেছে বাদি তা উল্লেখ করেননি। হত্যাকা-ের বিবরন দিয়ে বাদি সুষ্ঠু তদন্ত সাপেক্ষে প্রকৃত খুনিদের বের করে আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রফিকুল ইসলাম বলেন, এখন পর্যন্ত খুনের ঘটনায় কোনো রহস্য উদঘাটন করা সম্ভব হয়নি। তবে তদন্ত চলছে আশা করছি খুব শিঘ্রই এই হত্যাকা-ের রহস্য উদঘাটিত হবে এবং খুনিদের শণাক্ত করে আইনের আওতায় আনা সম্ভব হবে।
উল্লেখ্য, গত মঙ্গলবার রাত পৌনে ১০টার দিকে নজিপুর পৌরসভার মামুদপুর এলাকায় নিজ বাসভবনের কাছে দুর্বৃত্তদের ছুরিকাঘাতে খুন হন পতœীতলা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক পৌর মেয়র ইছাহাক হোসেন। এ ঘটনায় তার গাড়ির চালক দুলাল চন্দ্র আহত হন। তিনি বর্তমানে পতœীতলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এ ঘটনার পর ওই রাতেই ইছাহাক হোসেনের বাড়ির কেয়ারটেকার আতিকুল ইসলাম, নজিপুর পৌরসভার ১নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর আবুল কালাম ওরফে লেটু ফকির ও তাঁর বড় ভাই লোকমান হোসেনকে আটক করে।

 

পাঠকের মন্তব্য
লগইন করুন
লগইন মনে রাখুন