সর্বশেষ

হারিক্যানের শক্তিতে ধেয়ে আসছে তিতলি

অনলাইন ডেস্ক নিউজ | আপডেট: ০৪:৫২, অক্টোবর ১১ , ২০১৮

হারিক্যানের তীব্রতাসম্পন্ন প্রবল ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিয়েছে পশ্চিম-মধ্য বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থানরত ঘূর্ণিঝড় তিতলি। এটি আরো শক্তিশালী হতে পারে। গতকাল রাতে ঘূর্ণিঝড় কেন্দ্রের ৭৪ কিলোমিটারের মধ্যে বাতাসের সর্বোচ্চ একটানা গতিবেগ ছিল ঘণ্টায় ১২০ কিলোমিটার। তবে তা দমকা ও ঝড়োহাওয়ার আকারে ১৪০ কিলোমিটার পর্যন্ত বৃদ্ধি পাচ্ছিল। আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, হারিক্যানের শক্তিসম্পন্ন তিতলি আরো উত্তর উত্তর-পশ্চিম দিকে অগ্রসর ও ঘনীভূত হয়ে আজ বৃহস্পতিবার সকালের দিকে উড়িষ্যা ও অন্ধ্র উপকূল মধ্যবর্তী গোপালপুরের কাছ দিয়ে স্থলভাগে উঠে যেতে পারে। ঘূর্ণিঝড় কেন্দ্রের নিকটবর্তী সাগর উত্তাল রয়েছে।

চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরকে ৪ নম্বর স্থানীয় হুঁশিয়ারি সঙ্কেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। উত্তর বঙ্গোপসাগর ও গভীর সাগরে অবস্থারত সব মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারকে পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত নিরাপদ আশ্রয়ে থাকতে বলা হয়েছে।

আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, তিতলির প্রভাবে বাংলাদেশে খুলনা, বরিশাল ও চট্টগ্রাম বিভাগের অধিকাংশ জায়গায়, রাজশাহী ও ঢাকা বিভাগের অনেক জায়গায় এবং রংপুর, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় অস্থায়ী দমকা অথবা ঝড়োহাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সাথে দেশের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারী থেকে ভারী বর্ষণ হতে পারে। আজ সারা দেশে দিন এবং রাতের তাপমাত্রা হ্রাস পেতে পারে। গতকাল তিতলির প্রভাবে দেশের বিভিন্ন স্থানে কিছু বৃষ্টি হয়েছে। দিনের প্রায় পুরো সময় আকাশ ছিল মেঘাচ্ছন্ন। ফলে তাপমাত্রা অনেকটা সহনীয় পর্যায়ে নেমে আসে।

তিতলি নামটি দিয়েছে পাকিস্তান। এটা উর্দু ও হিন্দি ভাষায় সমানভাবে পরিচিত, যার অর্থ প্রজাপতি।

পাঠকের মন্তব্য
লগইন করুন
লগইন মনে রাখুন